চলতে পথে: ট্রাফিক পুলিশ যেখানে ব্যর্থ

কন্টক রায় ॥ অবাক হওয়ার বিষয়, ‘একেবারে সড়কের ওপর সারিবদ্ধভাবে দিন-রাত দাঁড়িয়ে থাকছে যাত্রীবাহী বাস।’ তাও আবার ব্যস্ততম সড়কের ওপর। এমন অবস্থা এক দু’দিনের নয়, চলছে বছরের পর বছর। অথচ প্রশাসন এ ব্যাপারে একদম নীরব। যশোর উপশহরস্থ খাজুরা বাসস্ট্যান্ড (ট্রাফিক আইল্যান্ড) থেকে শিা বোর্ড অফিসের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত সড়কটি এখন যাত্রীবাহী বাসের দখলে। যশোর-মাগুরা রুটের সকল বাস যেন এই সড়কটির মালিক। সড়কের সিংহভাগ জায়গা দখল করে নিয়েছে বাসগুলো। গুরুত্বপূর্ণ ও অতি ব্যস্ততম এই সড়ক দিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন রুটের যাত্রীবাহী অসংখ্য বাস চলাচল করে। এছাড়া চলাচল করে শত শত পণ্যবাহী ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন। অথচ ব্যস্ততম এই সড়কটির অর্ধেক জায়গাজুড়ে দিনরাত দাঁড়িয়ে থাকছে মাগুরা রুটের বাসগুলো। অন্যদিকে এই সড়কটির ‘ভাই ভাই হোটেল’ অংশে সার্বণিক (সিরিয়ালভাবে) একটি করে বাস একেবারে রাস্তার মাঝখানে অবস্থান করছে। এর ফলে সড়কটির সামনে ও পেছন থেকে কোন যানবাহন আসলে বুঝা যায় না। স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, ব্যস্ততম এই সড়কটির ওপরই ট্রাফিক পুলিশের আইল্যান্ড। অথচ পুলিশ সবকিছু দেখেও অজ্ঞাত কারণে নীরব। তারা জানান, এই সড়ক দিয়ে সহস্রাধিক যানবাহনের পাশাপাশি যশোর শিা বোর্ড মডেল স্কুল এন্ড কলেজের কয়েকশ’ শিার্থী ও পথচারী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন। এখানে সড়কের ওপর গাড়ি রাখার কারণে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। সচেতনমহল এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টরের আশু হস্তপে কামনা করেছেন।

ভাগ