উন্নয়নের নামে ব্যাপক দুর্নীতির ফিরিস্তি প্রধানমন্ত্রী দেননি: মওদুদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল জাতীর উদ্দেশ্যে দেওয়া বক্তব্যে উন্নয়নের নামে যে ব্যাপক দুর্নীতি হয়েছে তার ফিরিস্তি তিনি দেননি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে শনিবার দুপুরে ‘বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা ও গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভার আয়োজন করে ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, ‘উন্নয়নের মেলা বসানো হয়েছে, এটা তো উন্নয়নের মেলা নয়, দুর্নীতির মেলা বসানো হয়েছে। প্রত্যেকটি উন্নয়নের নামে যে ব্যাপক দুর্নীতি সেটা সবাই জানে। উন্নয়নের নামে যে হাজার কোটি টাকা দুর্নীতি হয়েছে তার ফিরিস্তি তিনি (প্রধানমন্ত্রী) দেননি। বড় বড় প্রকল্প মানেই হলো বড় বড় কমিশন। বড় বড় কমিশন মানেই হলো বড় বড় ঘুষ। বিশ্ব ব্যাংক বা অন্য কেউ এর তদারকি করে না। এই যে বড় বড় প্রকল্প, কে তদারকি করে? অর্থাৎ নির্দ্ধিধায় জনগণের টাকা লুণ্ঠন করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে এসব ব্যাপারে কিছু শুনতে চেয়েছিলাম যে, তিনি কী ব্যবস্থা নিয়েছেন। সে ব্যাপারে তিনি কিছুই বলেননি।’
এ বিষয়ে তিনি আরও বলেন, দেশের সর্বত্র ছাত্রলীগ, যুবলীগের টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, নারী ধর্ষণ, জমি দখল, ব্যবসা দখল, দোকান দখল এসব ব্যাপারে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) কিছুই বলেননি। তিনি বলেন, ‘বিরোধী দলের (বিএনপির) হাজার হাজার নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা এবং তাদের উপর অত্যাচার-নির্যাতনের কথা তার বক্তব্যে আসেনি। বিরোধী দলের কত হাজার নেতাকর্মী এখন কারাগারে আছে এবং তাদের বিরুদ্ধে কত হাজার মিথ্যা মামলা এই সরকার দায়ের করেছে সে কথাও তিনি তার ভাষণে বলেননি। বিএনপি কে নিশ্চিহ্ন করার জন্য তার সরকার যে মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে চলেছে সে ব্যাপারে তিনি কিছুই বলেননি।’
আগামী জাতীয় নির্বাচনে সকল দলের অংশগ্রহণ প্রত্যাশা করে দেওয়া প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে বিএনপির সাবেক এই আইনমন্ত্রী বলেন, কী করে নির্বাচন হবে? সরকারের পৃষ্ঠপোসকতায়, সুযোগ-সুবিধা নিয়ে একটা দল (আওয়ামী লীগ) নির্বাচনের প্রচারণায় নেমে গেছে, ভোট চাচ্ছে। পুলিশ, র‍্যাবের সাহায্যে সব করছে। তিনি (শেখ হাসিনা) বলেছেন, সকলের অংশগ্রহণ তিনি প্রত্যাশা করেন। কী করে করেন? একদল প্রচার করতে পারছে, আরেক দলকে গৃহবন্দি করে রেখেছে। কোনো সভা-সমাবেশও করতে দেওয়া হয় না। প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণ একতরফাভাবে দিয়েছেন, তিনি দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে কোনো কিছুই বলেননি বলেও এ সময় মন্তব্য করেন বিএনপির এই নেতা। আয়োজক সংগঠনের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সেলিমের সভাপতিত্বে এ সময় বিএনপি ও সংগঠনটির নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

ভাগ