ইসরায়েলি পুলিশের পরনে কেরালার ইউনিফর্ম

শুরু হয়েছে প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে। বেশ নাটকীয় বলা চলে সেই শুরুর বিষয়টি। ভারতের উত্তর কেরালায় এসেছিলেন ইসরায়েল পুলিশ ফোর্সের এক কম্যান্ডার।
তার সঙ্গে ছিলেন আরেক শীর্ষ কর্মকর্তা। একজন নারী কর্মকর্তা, ডিজাইনার এবং কোয়ালিটি কন্ট্রোলার। কেরালার এক পোশাক প্রস্তুতকারী সংস্থার কারখানায় যান তারা।
কুন্নুরের ভালিয়াভেলিচামের সেই কারখানায় অজ্ঞাতপরিচয় এক শিল্পীর হাতের তৈরি পোশাকই মন জয় করে তাদের। তার পর প্রতি বছর কেরালার ওই পোশাক কারখানা থেকেই প্রায় এক লাখ ইউনিফর্ম তৈরি করে পাঠানো হয় ইসরায়েলে।
মার্য অ্যাপারেল থমাস অলিকাল কোম্পানির প্রধান নির্বাহী বলেন, ইসরায়েলি পুলিশের কর্মকর্তারা সেই সময় প্রায় পাঁচদিন এখানে ছিলেন। বার বার তারা পরীক্ষা করে দেখেছিলেন সেই পোশাক তাদের সঙ্গে মানাচ্ছে কি না। ওই ঘটনার প্রায় কয়েক সপ্তাহ পর আবারো তারা এসেছিলেন পোশাক পরীক্ষা করতে।
আগে এই সংস্থা থেকে তাদের ইউনিফর্মের প্যান্ট সেলাই করা হতো। এ বছর থেকেই সেই অর্ডার চলে গেছে চীনের এক সংস্থার হাতে। নয়শ কর্মী নিয়ে চলা এই কোম্পানি বর্তশানে কুয়েতের জাতীয় নিরাপত্তারক্ষী ও দমকল বাহিনীর কর্মীদের পোশাক তৈরিতে ব্যস্ত।
সংস্থা কর্তৃপক্ষের দাবি, আগামী মাস থেকে ফিলিপাইনের জওয়ানদের পোশাকও তারা তৈরি করবেন। পোশাক তৈরির পাশাপাশি এই সংস্থা স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গেও যুক্ত।
যুক্তরাজ্য, জার্মানি, কাতার এবং সৌদি আরবের মতো দেশের সঙ্গে কাজ করেন তারা। সৌদির বেশ কয়েকটি হাসপাতালের ইউনিফর্মও তারাই তৈরি করে থাকেন।

ভাগ