ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বেলজিয়ামকে এগিয়ে রাখছেন সেইন্টফিট

আগের ৫ ম্যাচের সবগুলো জিতে সেমিফাইনালে উঠেছিল বেলজিয়াম। ১৯৮৬ সালের পর প্রথমবার শেষ চারের দেখা পেয়েও ‘সোনালি প্রজন্মের’ দলটির ওঠা হলো না ফাইনালে। ফ্রান্সের কাছে হেরে হলো স্বপ্নভঙ্গ। এখন তাদের সামনে সান্ত্বনা নিয়ে দেশে ফেরার উপলক্ষ। শনিবার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বেলজিয়াম। এই লড়াইয়ে বেলজিয়ানদের এগিয়ে রাখছেন বাংলাদেশের সাবেক কোচ টম সেইন্টফিট।
সেমিফাইনালে হারের ক্ষত এখনও ভুলতে পারেননি সেইন্টফিট। বেশ আগ্রহভরে নিজ দেশের খেলা দেখেছেন। ফ্রান্স কঠিন প্রতিপক্ষ হলেও রবের্তো মার্তিনেসের দল প্রথমবার ফাইনালে খেলবে আশা করেছিলেন এ বেলজিয়ান কোচ। কিন্তু গ্রিয়েজমান-এমবাপেরা তৃতীয়বার ফাইনালে গিয়ে তাদের স্বপ্নে আঘাত করে বসে। এই সেমিফাইনাল হারের দুঃসহ স্মৃতি ভুলতে পারছেন না সেইন্টফিট। তিনি বলেছেন, ‘বেলজিয়াম ভালো খেলেও ফাইনালে যেতে পারলো না। ফ্রান্স রক্ষণাত্মক খেলেছে। এতে করে হ্যাজার্ড-লকাকুরা আক্রমণ করলেও ম্যাচ জিততে পারেনি।’ তবে ম্যাচ না জেতার পেছনে বেলজিয়ামের ভুলও দেখছেন এই কোচ। পাঁচটি কারণ তুলে ধরে বলেছেন, ‘দেম্বেলেকে (মুসা) হাফ টাইমে বদলি করা ঠিক হয়নি। আর ইডেন হ্যাজার্ডকে কেন উইংয়ে খেলাতে হলো। চ্যাডলি যখন খারাপ করছিল কেন তাকে আগেই বসিয়ে রাখা হলো না। আর ফেলাইনিকে উঠিয়ে নিতে হবে কেন। বাতশুয়েইকে অনেক দেরিতে নামানো হয়েছে।’ অতীত ভুলে এবার বেলজিয়ানদের গলায় ব্রোঞ্জ পদক দেখতে চান সেইন্টফিট, ‘ইংল্যান্ডের চেয়ে আমরা ভালো দল। আমি তো মনে করি আমাদের ৩-১ গোলে জেতা উচিত। আমাদের ফরোয়ার্ড লাইন বেশ ভালো। এছাড়া মাঝমাঠ ও রক্ষণও ভালো খেলছে। আমি ইংল্যান্ডকে এগিয়ে বেশি নম্বর দিতে চাই না। ওদের হ্যারি কেইন তো দুই ম্যাচ গোল পায়নি। সব মিলিয়ে আমি আর গ্যারি সাউথগেটকে ভালো কোচ বলতে রাজি নই।’

ভাগ